GuidePedia

0
প্রিন্টার ( Printer) একটি আউটপুট ডিভাইস। এই আউটপুট ডিভাইস থেকে ভাল আউটপুট পেতে হলে আপনাকে প্রিন্টারের অবশ্যই যত্ন নিতে হবে। সঠিকভাবে প্রিন্টারের যত্ন ও ব্যবহার করা হলে একটি সাধারন প্রিন্টারও অনেক দিন স্বাভাবিক কাজ চালিয়ে যেতে পারে। তাহলে দেখে নেওয়া যাক প্রিন্টারের যে বিষয় গুলো আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।
এটিও পড়ুন -র‍্যাম ক্লিন করুন নোটপ্যাড ব্যবহার করে ! RAM Cleaner

প্রিন্টার ভালো রাখার সেরা ১০ টি টিপস

কিভাবে প্রিন্টারে যত্ন নেবেন ?


    1. প্রিন্টার কেনার সময় খেয়াল রাখবেন আপনার প্রিন্টারটি যেন একটি ভাল ব্র্যান্ডের হয়। এছাড়া আপনি যে কাজের জন্য প্রিন্টার নিতে চান ঠিক সে ধরনের বিষয় গুলো মাথায় রেখে বাজারে খোঁজ করুন। তারা আপনাকে সঠিক প্রিন্টার কিনতে সহায়তা করবে।

    2. প্রিন্টিং কাজের জন্য যথাসম্ভব উন্নত মানের কাগজ ব্যবহার করুন। এতে আপনার প্রিন্টার, প্রিন্টার হেড ভাল থাকবে যা আপনাকে অনেক অতিরিক্ত ঝামেলার হাত থেকে রক্ষা করবে।

    3. প্রিন্টার খোলা জায়গায় সেট করুন এবং ময়লাযুক্ত স্থানে প্রিন্টার ব্যবহার করবেন না।

    4. প্রিন্টার হেড পরিস্কার রাখার জন্য প্রিন্টারের Head Clean করুন। তা না হলে নজলে কালি জমে আটকে থাকবে, যা পরে পরিস্কার ছাপার কাজে বাধার সৃষ্টি করবে।  প্রিন্টার হেড পরিস্কার করার প্রিন্টারের কার্ট্রিজ খুলেও নরম সুতির কাপড়ে সামান্য পানিতে ভিজিয়ে তা দিয়ে হেড পরিস্কার করতে পারে। শুকিয়ে গেলে কার্টিজ পুনরায় স্থাপন করুন।

    5. নিয়মিত প্রিন্টার ব্যবহার করলে কালি শুকিয়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে না। সপ্তাহে অন্তত একবার প্রিন্ট করলে কালি সহজে শুকিয়ে যায় না আর প্রিন্টারও ভালো থাকে।

    6. প্রিন্টারের কাগজ রাখার স্থানটি যথাযথভাবে ব্যবহার করুন। প্রিন্টের মাঝপথে কাগজ আটকে গেলে তা উল্টো দিখ দিয়ে টানাটানি করে বের করার চেষ্টা করবেন না। এতে পুরো প্রিন্টারটি নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে। প্রয়োজনে এ জাতীয় পরিস্থিতিতে প্রিন্টারের কারিগরি নির্দেশিকার সাহায্য নিতে পারেন।

    7. সবসময় প্রিন্টার ব্যবহার না করলে পাওয়ার অন করে রাখার দরকার নেই। কেবল কাজের সময় পিন্টারের পাওয়ার অন করে দীর্ঘদিন উঁচুমানের প্রিন্টিং করা সম্ভব। তবে কাজের মাঝপথে কখনোই প্রিন্টার অফ করা উচিত নয়। আর পাওয়ার অফ করার পরই কেবল প্লাগ খুলে নেওয়া যাবে।

    8. এছাড়া প্রিন্টার সফটওয়্যারের Maintenance প্রোগ্রামের সাহায্য নিয়েও প্রিন্টারের কালি চেক করা এবং পরিস্কার করা যায়।
    9. কালি কমে আসার আগেই বা শেষ হওয়ার সতর্কবার্তা পাওয়া মাত্রই তা বদলে ফেলুন। শেষ মুহুর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করলে প্রিন্টার হেড ও নজলের উপর অতিরিক্ত চাপ পরে। তাই সময় থাকতেই নতুন কালি প্রতিস্থাপন করে নিন।
    10.  যে কম্পানির প্রিন্টার ব্যবহার করছেন সেই কম্পানির কালি ব্যবহার করা উচিৎ কিংবা ভালো ব্র্যান্ডের কালি ব্যবহার করা উচিৎ।

      Post a Comment Blogger

      Loading...
       
      Top